সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৩৩ অপরাহ্ন

হোটেল অবকাশ

  • আপডেট সময় শনিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

১৯৪৭ সালে সরকারী মালিকানাধীন হোটেল, ‘হোটেল অবকাশের’ যাত্রা শুরু হয়। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন হোটেলটি পরিচালনা করে থাকে।

অবস্থান  ঠিকানা

সরকারী তিতুমীর কলেজ থেকে মূল সড়ক ধরে পূর্ব দিকে ১০০ গজ এগোলেই হাতের বাম পাশে পাওয়া যাবে এই হোটেলটি।

ঠিকানা: ৮৩-৮৮ মহাখালী বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা- ১২১২।

যোগাযোগ: ফোন- ৮৮৩৩২২৯, ৮৮৩৪৬০০, ফ্যাক্স-৮৮৩৯০০

অনুসন্ধান ডেস্ক

অন্তত পাঁচজন ব্যক্তি দিন-রাত ২৪ ঘন্টা অনুসন্ধান ডেস্কে দায়িত্ব পালন করেন।

ফোন- ৮৮০-২-৮৮১১১০৯, ৯৮৯৯২৮৮, ফ্যাক্স- ৮৮০-২-৮৮১১১৫০

বুকিং দেয়া

ফোনে বা ফ্যাক্সের মাধ্যমে বুকিং দেয়া যায়। বিদেশী নাগরিকগণের জন্য ফ্যাক্সের মাধ্যমে বুকিং দেবার ব্যবস্থা থাকলেও স্থানীয়দের ক্ষেত্রে বুকিং দেবার সময় অগ্রীম টাকা দিতে হয়। শীতমৌসুমে ভিড় একটু বেশি হয়। সেজন্য একটু আগে থেকে বুকিং দিতে হয়।

রুম সমূহ

চারতলা বিশিষ্ট হোটেলটিতে মোট ৩৫ টি রুম আছে, এর মধ্যে রিলাক্স রুম ২২টি এবং স্ট্যান্ডার্ড রুম ১৩ টি। একতলায় অভ্যর্থনা কেন্দ্র, ৩য় ও ৪র্থ তলা জুড়ে আছে ন্যাশনাল এন্ড ট্যুরিজম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

ডিলাক্স রুম

ডিলাক্স রুমের ক্ষেত্রে  প্রতিদিনের ভাড়া ৩,০০০ টাকা। রুমগুলো শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। এছাড়া রুম গুলোতে ঠান্ডা ও গরম পানি, কেবল সংযোগসহ টেলিভিশন, আইএসডি ফোন, ফ্যাক্স, ইন্টারনেট, ইত্যাদি সুবিধা আছে। প্রতিটি ডিলাক্সরুমে মিনি ফ্রজার আছে।

ষ্টান্ডার্ড রুম

ষ্টান্ডার্ড রুমের সুযোগ-সুবিধা ডিলাক্স রুমের মতই তবে রুমগুলো আয়তনে একটু ছোট আর ফ্রিজার নেই। প্রতিদিনের ভাড়া ২,২০০ টাকা।

রুমের ভাড়ার সাথে ব্রেকফাষ্ট যুক্ত নয়। তবে হোটেলটিতে একটি রেস্টুরেন্ট আছে, কেউ চাইলে সেখান থেকে রুমেই খাবার সরবরাহ করা হয়। এছাড়া একটি কফি শপও আছে।রেষ্টুরেন্টটিতে আমেরিকান ব্রেক ফাষ্ট, ইন্ডিয়ান ও চাইনিজ এছাড়াও বাংলাদেশী লাঞ্চ ও ডিনারের ব্যবস্থা আছে। বাংলাদেশী খাবারের মধ্যে রয়েছে জুস অথবা ফ্রুটস। হোটেলটির রেষ্টুরেন্টে নন বোর্ডার ও বোর্ডারদের জন্য আলাদা কোন সুবিধা নেই। সবাই একই রকম সুবিধা ভোগ করে থাকে। তবে বোর্ডাররা ইচ্ছা করলেই রুমে খাবার আনিয়ে নিতে পারেন।

সভাসেমিনারমেলাপ্রদর্শনী  সংবাদ সম্মেলন আয়োজন

সভা, সেমিনার, মেলা, প্রদর্শনী ও সংবাদ সম্মেলন আয়োজনের জন্য অর্ধদিবসের ভাড়া ৭,০০০ টাকা থেকে ১৪,০০০ টাকা। কনফারেন্স হলে আসন সংখ্যা ৪৫ টি, পূর্ণ দিবসের ভাড়া ৭০০০ টাকা এবং অর্ধদিবসের ভাড়া ৪৬০০ টাকা। বেনকুইট হলের আসন সংখ্যা ১০০ টি পূর্ণ দিবসের ভাড়া ১৪,০০০ টাকা এবং অর্ধদিবসের ভাড়া ৯৫০০ টাকা। এখানে সম্মেলন আয়োজন করতে গেলে ২০০ লোকের বসার ব্যবস্থা করা সম্ভব।

ব্যাংকের বুথ

হোটেলটির কাছেই  ডাচ বাংলা ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ও এশিয়া ব্যাংকের বুথ আছে।

পরিবহন

এই হোটেলের এয়ারপোর্ট থেকে অতিথিদের আনা-নেয়ার নেওয়ার ব্যবস্থা নেই, গাড়ি ভাড়ার ব্যবস্থাও নেই। নিজ দায়িত্বের পরিবহনের ব্যবস্থা করতে হয়।

অন্যান্য তথ্য

  • অগ্নি নিরাপত্তা: ভবনটির দুই পাশে ২ টি, মাঝে এবং সামনে একটি করে মোট চারটি জরুরি নির্গমণ সিঁড়ি আছে।
  • টেলিভশন, পত্রিকা, ফ্যাক্স ও ইন্টারনেট ইত্যাদির ব্যবস্থা আছে।
  • হোটেলটিতে প্রবেশের সময় হাতের বাম পাশে দু’টি লিফট রয়েছে।
  • হোটেলটিতে সুইমিংপুল, জিমনেসিয়াম বা অন্যান্য খেলাধুলার সুইমিংপুল, জিম, হেলথ ক্লাব ইত্যাদি এগুলো এ হোটেলে নেই। স্কোয়াশ, টেনিস ইত্যাদি খেলার ব্যবস্থাও নেই।
  • লোডশেডিং এর সময় বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা চালু রাকার জন্য জেনারেটর আছে।
  • হোটেলটিতে নগদ টাকায় বিল পরিশোধ করতে হয়। ডলার, ইউরো, পাউন্ড ইত্যাদি বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় করা হয় না।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

ভ্রমন সম্পর্কিত সকল নিউজ এবং সব ধরনের তথ্য সবার আগে পেতে, আমাদের সাথে থাকুন এবং আমাদেরকে ফলো করে রাখুন।

© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Customized By ThemesBazar.Com