1. b_f_haque70@yahoo.com : admin2021 :
  2. editor@cholojaai.net : cholo jaai : cholo jaai
সরকারি অনুদান ফিরিয়ে দিলেন অমিতাভ রেজা, বানাবেন না সিনেমা
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন

সরকারি অনুদান ফিরিয়ে দিলেন অমিতাভ রেজা, বানাবেন না সিনেমা

চলযাই ডেস্ক :
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

৬০ লাখ টাকা অনুদান পেয়েছিলেন। ইতোমধ্যে অ্যাকাউন্টে আসা ১৮ লাখ টাকা জরিমানাসহ ফেরত দিচ্ছেন তিনি

২০২০-২১ অর্থবছরে হুমায়ূন আহমেদের “পেন্সিলে আঁকা পরী” উপন্যাসের গল্প নিয়ে সিনেমা নির্মাণের জন্য ৬০ লাখ টাকা অনুদান পেয়েছিলেন খ্যতিমান নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী। তবে এই সিনেমা নির্মাণ না করে অনুদানের টাকা সরকারকে ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

প্রথম কিস্তি ১৮ লাখ টাকা সরকারি কোষাগার থেকে ইতোমধ্যে জমাও পড়েছে অমিতাভের অ্যাকাউন্টে। আগে থেকেই প্রস্তুত কাস্টিং, লোকেশনসহ প্রায় সবকিছু। কিন্তু মাঠে নামার আগেই অমিতাভ রেজা সিদ্ধান্ত নিলেন, ছবিটি না বানানোর। এরমধ্যে সরকারের অনুদান কমিটির সঙ্গে আলাপও করেছেন, জানিয়েছেন তার সিদ্ধান্ত। কাল-পরশুর (১৫ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর) মধ্যে পুরো টাকাটাই সরকারকে ফেরত দিচ্ছেন অভিমানী অমিতাভ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, “পেন্সিলে আঁকা পরী” সিনেমাটির প্রযোজক ছিলেন মেহেজাবীন রেজা চৌধুরী, আসাদুজ্জামান ও অমিতাভ রেজা। চিত্রনাট্য লিখেছেন রঞ্জন রব্বানী। পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী। হুমায়ূন আহমেদ ট্রাস্টি বোর্ড সিনেমাটি নির্মাণের আগে বড় অঙ্কের অর্থ ও মুক্তির পরেও রেভিনিউ শেয়ার করাসহ বেশ কিছু শর্ত জুড়ে দিয়েছে। এসব শর্তে সিনেমাটি থেকে সরে এসেছেন খ্যাতিমান এই নির্মাতা।

অমিতাভ রেজা বলেন, “সিনেমাটির জন্য দশ বছরের প্রস্তুতি নিয়েছি, তিন বছর চিত্রনাট্যের কাজ করেছেন রঞ্জন রব্বানী। দুই দফা সরাসরি হুমায়ূন আহমেদের কাছ থেকে সিনেমাটি নির্মাণের জন্য অনুমোদন নিয়েছি। কিন্তু অনুদান পাওয়ার পর হুমায়ূন আহমেদ ট্রাস্টি বোর্ডের (হুমায়ূন পরিবার) চূড়ান্ত অনুমোদন নিতে গেলে আর্থিক বিষয়সহ বেশ কিছু নতুন শর্ত দেওয়া হয়েছে। যেটি মেনে আমার পক্ষে সিনেমাটি নির্মাণ করা সম্ভব নয়। সে কারণে আমি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

 

তবে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে অনুদান কমিটির সঙ্গেও বসেছেন অমিতাভ রেজা। কমিটির সদস্যরা বার বার তাকে অনুরোধ করেছেন, সবার সঙ্গে আবার বসে একটা সুরাহা করে ছবিটি নির্মাণের।

কিন্তু অমিতাভ মনে করছেন, ছবিটি নির্মাণ হলে না হবে অনুদানের টাকাগুলোর সঠিক ব্যবহার, না হবে স্যারের গল্পটির যোগ্য উপস্থাপন। তার ভাষায়, “সরকারি টাকা মানে জনগণের টাকা। তো সেই টাকাগুলো নিয়ে আমি জনগণের সম্পদ নষ্ট করতে চাই না। আমি স্পষ্ট দেখতে পারছি, ছবিটি শেষ পর্যন্ত বানাতে পারবো না ট্রাস্টি বোর্ডের শর্তগুলো পূরণ করতে গেলে। তারচেয়ে সরকারের টাকাটা ফেরত দেওয়াই উত্তম।”

অভিতাভ রেজা আরও জানিয়েছেন, এরই মধ্যে ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অনুদানের ১৮ লাখ টাকা পাঠানো হয়েছে। ১৮ হাজার টাকা জরিমানা দিয়ে সেই টাকা ফেরত দিচ্ছেন কাল বা পরশু।

এদিকে নির্মাতার মুক্তিপ্রতীক্ষিত ২য় চলচ্চিত্র “রিক্সা গার্ল” নিয়ে যাচ্ছেন উত্তর আমেরিকায়। ৭ থেকে ১৭ অক্টোবর মিল ভ্যালি চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হবে ছবিটি। যেখানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকছেন অমিতাভ রেজা নিজেও। ফিরেই জানাবেন নতুন নির্মাণের ঘোষণা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com