1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : cholo jaai : cholo jaai
লাটভিয়াতে উচ্চশিক্ষা
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:২৩ অপরাহ্ন

লাটভিয়াতে উচ্চশিক্ষা

চলযাই ডেস্ক :
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১

পূর্ব ইউরোপের অপরূপ সুন্দর ছোট একটি দেশ লাটভিয়া। এই দেশে রয়েছে হাজারো নদী ও হ্রদ। আর এর সৌন্দর্য উপভোগ করতে হাজার মানুষ প্রতি বছর ভীড় জমায় এই দেশে। শুধু তাই নয়, এখানে উচ্চ শিক্ষার জন্যও অনেক শিক্ষার্থী ভীড় জমাচ্ছে সম্প্রতি কালে। তাই, আমরা আজ লাটভিয়ায় উচ্চশিক্ষা নিয়ে আলোচনা করব।

কেন লাটভিয়াতে পড়তে যাবেন?

বাল্টিক সাগরের পূর্ব উপকূলবর্তী এই দেশের আয়তন ৬৪,৫৮৯ বর্গকিলমিটার এবং জনসংখ্যা ১৯৫,৭০০। এদেশের সবচেয়ে বৃহৎ শহর, বন্দর ও রাজধানী হল রিগা। এই দেশের অফিসিয়াল ভাষা লাটভিয়ান ও মুদ্রা ইউরো। এর প্রতিবেশি দেশগুলো হল লুথিনিয়া, এস্তোনিয়া, রাশিয়া, বেলারুশ, সুইডেন। এই দেশে কৃষি উপোযোগী জমির পরিমাণ ২৫% আর আয়তন বাংলাদেশের অর্ধেক। তবে উন্নয়নের দিক দিয়ে এটি অনেক এগিয়ে আছে। লাটভিয়া উচ্চশিক্ষার জন্য জনপ্রিয় হয়ে ওঠার অন্যতম কারণ হল এই দেশের কম টিউশন ফি। প্রতি বছর বিদেশী শিক্ষার্থীর হার ১০% করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই বাংলাদেশী শিক্ষার্থী যারা বিদেশে পড়তে যেতে চান, তাদের জন্য লাটভিয়া হয়ে উঠতে পারে একটি আদর্শ ডেস্টিনেশন।

Study in Latvia
Image Source: pixabay.com
লাটভিয়ার শিক্ষার মান ভাল এবং আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত।

লাটভিয়া পড়তে যাবার জন্য নূন্যতম যোগ্যতা

যদি আপনি লাটভিয়াতে ব্যাচেলর পড়তে চান তাহলে আপনাকে কমপক্ষে HSC পাশ করতে হবে। এবং সাধারণত ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীরা ইংরেজী মাধ্যমে পড়াশুনা করে- আর তাই আপনাকে IELTS বা TOEFL লাগবে। আর বিশ্ববিদ্যালয় ভেদে যোগ্যতা ভিন্ন হয়ে থাকে। যদি আপনি মাস্টার্সে যেতে চান, তাহলে কমপক্ষে ব্যাচেলর ডিগ্রী অর্জন করতে হবে। এই দেশে IELTS-এ কমপক্ষে ৬.০ অথবা TOEFL-এ ৫০০ থাকতে হবে বা ibt তে ৯০ স্কোর থাকতে হবে।

কোর্স সার্চ ও বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচন

উচ্চশিক্ষার প্রথম কাজ হল সাবজেক্ট ও বিশ্ববিদ্যালয় নির্বাচন করা। কারণ যদি আপনি ভালো কোর্স ও ভালো বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্বাচনে ব্যর্থ হন, তাহলে ভবিষ্যতে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। তাই এই কাজটি অনেক ধৈর্য্য ও সতর্কতার সাথে করবেন। এই ক্ষেত্রে গুগল হতে পারে আপনার পরম বন্ধু। এই দেশে আপনি মেডিকেল, সাইন্স, ইঞ্জিনিয়ারিং, বিজনেস সকল বিষয়েই পড়াশুনা করার সুযোগ পাবেন।

কোর্স নির্বাচন করতে আপনি সাহায্য নিতে পারেনে এই ওয়েবসাইট এরঃ

http://www.studyinlatvia.lv/study-programmes

পাব লিক এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় খুঁজতে সাহায্য নিতে পারেনে এই ওয়েবসাইট এরঃ

http://www.studyinlatvia.lv/universities

University of Latvia
Image Source: Internet

লাটভিয়ার কিছু নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের লিস্ট নিচে দেওয়া হলঃ

  • University of Latvia (LU), Riga
  • Riga Technical University
  • Riga Stradiņš University (formerly Medical Academy of Latvia)
  • Daugavpils University
  • University of Liepaja (former Liepaja Pedagogical Higher School)
  • Latvia University of Agriculture
  • Riga International School of Economics and Business Administration
  • Stockholm School of Economics in Riga
  • Baltic International Academy
  • Banking Institution of Higher Education
  • Latvian Academy of Sports Education
  • Latvian Maritime Academy
  • National Academy of Defense of the Republic of Latvia
  • Newport University CED
  • Police Academy of Latvia
  • Psychology Higher School
  • Rezekne Higher School
  • Riga Graduate School of Law (RGSL)
  • Riga Teacher Training and Educational Management Academy
  • School of Business Administration Turiba
  • Transport and Telecommunication Institute
  • Ventspils University College
  • Vidzeme University of Applied Sciences

ভর্তি আবেদনের প্রক্রিয়া ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আবেদনের প্রথমেই আমাদের মাথায় আসে আবেদন ডাকযোগে পাঠাবেন নাকি অনলাইনে করবেন সেই বিষয়ে। মজার ব্যাপার হল, এই দেশে এরকম কোন ধরাবাধা নিয়ম নেই। এজন্য প্রথমেই আপনাকে ওয়েব সাইট দেখে ও ভার্সিটিতে মেইল করে আপনাকে জেনে নিতে হবে। আবেদনের জন্য আপনার আবেদন ফি ১০০ থেকে ২০০ ইউরো প্রয়োজন পরবে। এই ক্ষেত্রে উল্লেখ্য, এই আবেদন ফি ফেরৎযোগ্য নহে। অন-লাইন বা অফ-লাইন আবেদন পত্র জমা দেওয়ার পর আপনাকে দেড় মাসের মত অপেক্ষা করতে হবে আপনার ফলাফল জানার জন্য। যদি কর্তৃপক্ষ আপনার আবেদন গ্রহণ করে তাহলে তারা আপনার সাক্ষাৎকার অথবা অনলাইন এক্সাম নিবে এবং তাতে পাশ করলে আপনি পেয়ে যাবেন সেই কাঙ্ক্ষিত অফার লেটার । আর একই সাথে পাঠানো হবে একটি এগ্রিমেন্ট পেপার যাতে আপনাকে নিজ হাতে সাইন করতে হবে। এরপর আপনাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে একাউন্টস নম্বর দেওয়া হবে, সেখানে টিউশন ফি জমা দিতে হবে।

এখন জেনে নিই আবেদনের সময় কি কি কাগজপত্র জমা দিতে হবেঃ

১। একাডেমিক সার্টফিকেট এবং মার্কশীট

২। IELTS এর সনদ

৩। মোটিভিশন লেটার ও রিকমেন্ডেশন লেটার

৪। CV

৫। পাসপোর্টের কপি ও ফটোগ্রাফ

৬। এপ্লিকেশন ফর্ম ও এপ্লিকেশন ফী জমা দেওয়ার রশিদ

ডকুমেন্টস সত্যায়নঃ

লাটভিয়ায় আবেদনের জন্য আপনাকে সকল কাগজপত্র ইংরেজীতে অনুবাদ ও নোটারাইজড করে নিতে হবে। এর পর আপনাকে সকল ডকুমেন্টস লিগ্যালাইজড করতে হবে। এটি কোথা থেকে এবং কিভাবে করবেন এটি বিশ্ববিদ্যালয় আপনাকে বিস্তারিত জানিয়ে দিবে।

Students in latvia
Image Source: Internet

পড়াশোনার খরচ (টিউশন ফি)

ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় এই দেশের টিউশন ফি অনেক কম। বিষয়ভেদে টিউশন ফি ও ভিন্ন হয়ে থাকে যেমনঃ

(১) মেডিকেল প্রোগ্রামঃ ৮,০০০- ১৫,০০০ ইউরো

(২)বিজনেস ম্যানেজমেন্টঃ ২,০০০ – ৬,০০০ ইউরো

(৩)ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রামঃ ১,৫০০ – ৪,০০০ ইউরো

লাটভিয়া ইউরোপের একটি দেশ হলেও বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় এই দেশ কিছুটা নিচের দিকে।

পূর্বের বছরগুলোতে কিছু বাংলাদেশী শিক্ষার্থী লাটভিয়াতে ভর্তি হলেও তারা সেই দেশে পড়াশুনা শেষ না করে চলে আসার কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বাংলাদেশীদের জন্য বিশেষ রিকোয়ারমেন্ট, অর্থাৎ, ২ বছরের টিউশন ফি অগ্রীম প্রদানের শর্ত চালু করেছে।

তবে আপনি যদি প্রকৃতপক্ষেই পড়াশুন করতে চান, তাহলে এটি নিয়ে চিন্তার কারণ নেই। এখানে মাস্টার্স ও পিএইচডিতে স্কলারশিপের সুযোগ রয়েছে। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ে আগে থেকে মেইল করে সব কিছু জেনে নিতে হবে।

আর্থিক স্বচ্ছলতার প্রমাণ

ব্যাংক স্বচ্ছলতার জন্য আপনাকে প্রতি বছরের জন্য ৫,৩০০ ইউরো করে, যত বছরের জন্য আপনি কোর্সে ভর্তি হবেন তত বছরের জন্য অর্থ দেখাতে হবে। এক্ষেত্রে, ২ বছরের জন্য হলে আপনাকে ১০,৬০০ ইউরো ব্যাংকে দেখাতে হবে।

Students in Latvia
Image Source: Internet

লাটভিয়ায় আবাসন ব্যবস্থা

এই দেশে প্রায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়েই রয়েছে হোস্টেলের ব্যবস্থা। এছাড়া বিভিন্ন স্টুডেন্ট এপার্টমেন্টেরও ব্যবস্থা এই দেশে রয়েছে। ভিসা আবেদন জমা দেওয়ার আগেই বিষয়টি আপনাকে ফাইনালাইজ করতে হবে। ভর্তি আবেদনের সময় হোস্টেলের জন্যও আবেদন করবেন।

নিচে একুমোডেশন এর জন্য কিছু ওয়েবসাইট দেওয়া হলঃ

http://www.aparta.lv/

http://www.latio.lv/en

http://www.rigaskore.lv/?l=en

http://www.centrum-apartments.com/

http://www.apartments-oldriga.com/

http://www.valdemara-residence.com/students/valdemar_en.html

এপার্টমেন্ট এর অফিসিয়াল ফেইসবুক গ্রুপ (রিগা স্টুডেন্টস এপার্টমেন্ট মার্কেট) – https://www.facebook.com/groups/216085778535871/

ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া ও ডকুমেন্টস চেকলিস্ট

আপনি যদি অফার লেটার পেয়ে থাকেন, তাহলে আশা করা যায় আপনি ভিসাও পেয়ে যাবেন। বাংলাদেশে লাটভিয়ার এম্বেসী না থাকায় আপনাকে পাশের রাষ্ট্র ইন্ডিয়াতে ভিসা জমা দিতে জেতে হবে। এই সময় সকল কাগজপত্র অরিজনাল ও ফটোকপি সাথে নিয়ে যেতে হবে। ভিসা আবেদনের জন্য পূর্বেই আপনাকে অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে হবে।

ভিসা বা রেসিডেন্স পারমিট অ্যাপ্লিকেশান প্রসেসিং সম্পর্কে জানতে এই ওয়েবসাইট এর সাহায্য নিতে পারেনঃ http://www.mfa.gov.lv/en/newdelhi/visas

কমপ্লিট রেসিডেন্স পারমিট অ্যাপ্লিকেশান ফরম; এখানে –

http://www.pmlp.gov.lv/en/home/services/residence-permits/applications.html

https://www.pmlp.gov.lv/en/home/services/residence-permits/doc2/studies2.html

ভিসা সংক্রান্ত তথ্য জানতে ভিসিট করুন লাটভিয়ান ইমিগ্রেশন ওয়েবসাইট –http://www.pmlp.gov.lv/en/pakalpojumi/vizas.html

Students Visa - Latvia
Image Source: Internet

নিচে এম্বেসীর ঠিকানা ও ওয়েবসাইট লিংক দেওয়া হল।

Embassy of Latvia, New Delhi, India

B-8 Anand Niketan, Deli 110 021
Telephone: +91 1149859100 | Email: [email protected]

Website: https://www.mfa.gov.lv/en/newdelhi

ভিসার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের লিস্টঃ

১। রেসিডেন্স পারমিট এপ্লিকেশোন ফর্ম

২। পাসপোর্ট ও  ফটোগ্রাফ

৩। জন্ম নিবন্ধন ও NID কার্ড

৪।সকল লিগ্যালাইজড ডকুমেন্টস, মার্কশিট ও সকল সনদ

৫।  অফার লেটার ও স্টুডেন্ট এগ্রিমেন্ট পেপ্যার

৬। অ্যাকোমোডেশন পেপ্যার

৭। ব্যাংক সলভেন্সি পেপ্যার

৮। ৬ মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট

৯। পুলিশ ক্লিয়ারান্স

১০। হেলথ ইন্স্যুরেন্স

হেলথ ইন্স্যুরেন্স সম্পর্কে জানতেঃ  http://www.studyinlatvia.eu/en/living-in-latvia/health-insurance

১১।IELTS স্কোরের কপি

ভিসা এপ্লিকেশন জমা দেওয়ার পর কমপক্ষে ৬০-৭৫ দিন আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে ভিসা পাওয়ার জন্য।

আরও বিস্তারিত জানতে নিম্মোক্ত ওয়েবসাইট এর সাহায্য নিতে পারবেনঃ

www.am.gov.lv/en/ministry/mission
www.pmlp.gov.lv/en

Life in Latvia
Image Source: Internet

মাসিক খরচ এবং পার্ট টাইম জব এর সুযোগ

থাকা ও খাওয়া বাবদ এই দেশে আপনাকে গুণতে হবে ৩০০ থেকে ৪০০ ইউরো। তবে ব্যক্তিবিশেষে তা কম -বেশি হতে পারে। এই দেশে আপনি সপ্তাহে ২০ ঘন্টা কাজের সু্যোগ পাবেন। কিন্তু পার্ট টাইম জবের সু্যোগ কম থাকায় অনেক স্টুডেন্ট সমস্যায় পড়েছে। কিন্তু চিন্তার কারণ নেই- ধীরে ধীরে এই সুযোগ আগের থেকে বাড়ছে। এক মাস কাজ করলে আপনি বেতন পাবেন আনুমানিক ৪০০ ইউরোর মত।

কোর্স শেষে চাকুরী ও স্থায়ী বসবাস এর সুযোগ

বর্তমান সময়ে একটা বিষয় লক্ষ করার মত – যে সকল বাংলাদেশী এই মুহর্তে লাটভিয়া আসছেন পড়াশুনা করতে তারা কেউ ই লাটভিয়াতে থাকছেন না । কারণ লাটভিয়াতে জব পাওয়া একটু কঠিন আর বেতন বেশি না বলে তারা কেউ ই ওই দেশে থাকতে চাচ্ছেন না। কিন্তু ওই সকল ছাত্র/ছাত্রীদের অভিবাসন নীতি সম্পর্কে কারো কোন সুস্পষ্ট ধারণা না থাকার ফলে এমন ঘটনা ঘটে চলেছে। যারা মূলত পড়াশোনা করতে আসেন তাদের জন্য পড়াশুনা চালিয়ে যাওয়া অসম্বভ কিছু না। আর পড়াশুনারত অবস্থায় চাইলে আপনি আপনার রেসিডেন্ট পার্মিট ব্যবসায়িক পার্মিট এ পরিবর্তন করতে পারেন। ব্যবসায়িক পার্মিট এ পরিবর্তন করতে হলে আপনাকে ব্যাঙ্ক এ কিছু টাকা দেখাতে হবে।

একটি তথ্য না বললেই নয়, লাটভিয়াতে সফল ভাবে কোর্স সম্পন্ন করার পর আপনি ইউরোপের যেকোন দেশে চাকুরী করতে পারবেন এবং স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পাবেন।

কিছু কিছু ইউনিভার্সিটিতে আপনি বৃত্তি নিয়ে  মাস্টার্স ও পি এইচ ডি তে পড়াশুনা করতে পারবেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com