বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্ট

  • আপডেট সময় রবিবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২৩

মেঘের রাজ্য সাজেকের অন্যতম আকর্ষনীয় রিসোর্টগুলোর মধ্যে ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্টের নাম উঠে আসে। বর্তমানে সাজেক পর্যটকদের কাছে অনেক জনপ্রিয় স্থান। মেঘের রাজ্যে বসবাস একসময় ছিল রূপকথার গল্প, কিন্তু এখন এই রূপকথা সত্যি প্রমাণিত হয়েছে। এখন চাইলেই বাস করা যাবে মেঘের দেশ সাজেকে, আর তার জন্য অতিথি আপ্যায়ন করতে প্রস্তুত আছে ‘ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্ট’। জেনে নেয়া যাক এই রিসোর্টের আদ্যোপান্ত।

ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্ট নিয়ে কিছু কথা :

ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্টটি সাজেকের রুইলুই পাড়ার মাহমুয়ামে অবস্থিত। এটি দ্বিতল বিশিষ্ট একটি রিসোর্ট যা সেনাবাহিনী গার্ড পোস্টের সামনের একটি কটেজ। এখান থেকে মনে হবে আপনি মেঘের উপর বাস করছেন। কারণ রিসোর্টের অবস্থান থেকে নিচে পাহাড় দেখা যায়, আর ঠিক পাহাড়ের উপর মেঘ জমে আছে। তাই রিসোর্টের বারান্দা থেকে দেখলে মনে হয় মেঘের সাথে আপনিও ভেসে যাচ্ছেন। সাদা তুলোর মতো ভেসে বেড়ানো মেঘ দেখে আপনারও মনে হবে মেঘে চড়ে ঐ দূর আকাশে ঘুরে বেড়াতে।

ছবি : সংগৃহীত

বলতে গেলে এই রিসোর্টটি বেশ বড়ই। এখানে আছে মোট ১১টি রুম। এখান থেকে শুধু মেঘ নয়, গোধূলি বেলার অরুনরাঙ্গা সূর্য মেঘের সমুদ্রে ডুবে যাওয়া দেখা যায়; আর রাঙ্গা মেঘ ভেসে ভেসে চলে আসছে আপনার কাছে। বারান্দা কিংবা রুমের জানালা দিয়ে দেখতে পাবেন তারা ভরা আকাশ, তারা গুলো যেনো একলা চাঁদকে ঘিরে রেখেছে। কখনও কখনও চাঁদের মুখ ঢেকে যাচ্ছে মেঘের ছোঁয়ায়। ভোর বেলায় সূর্যটা পাহাড়ের ওপার থেকে উঁকি দিয়ে ঘুম ভাঙ্গিয়ে দেবে! কখনও কখনও দেখা যায় রংধনুও।

ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্টের কিছু সুযোগসুবিধা :

  • সুসজ্জিত রুম
  • দ্বিতল বিশিষ্ট  অন্যতম সর্বোচ্চ বারান্দা
  • ব্যক্তিগত পার্কিং ব্যবস্থার সুযোগ
  • নির্ভরযোগ্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা
  • মেঘাসন (মেঘ দেখার জন্য আছে বিশেষ আসন ব্যবস্থা)
  • অতিথিদের জন্য আছে দোলনা
  • তাবু সার্ভিস
  • ২৪ ঘন্টা বৈদ্যুতিক লাইট-ফ্যানের ব্যবস্থা , ১৮ ঘন্টা মোবাইল চার্জিং ক্যাপাসিটি, আছে মোবাইল চার্জিং এর জন্য ৩ ঘন্টা জেনারেটরের ব্যবস্থা
  • আছে সর্বোচ্চ পানি ধারণ করার ব্যবস্থা
  • সাজেকের একমাত্র লাইব্রেরি পাবেন এই রিসোর্টে
  • আছে দৈনিক পত্রিকা পড়ার ব্যবস্থা

এছাড়াও আছে বড় একটি রিসিপশন রুম, যেখানে অতিথিদের আনন্দের সাথে স্বাগতম জানানো হয়। বলা হয়ে থাকে এটি সাজকের সবচেয়ে বড় রিসিপশন রুম।

রুম ভাড়া :

ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্টের একটি রুম। ছবি : দ্যা ট্রাভেল গ্রুপ

১১টি রুমের মধ্যে কাপল রুম, ডাবল বেড-এর ব্যবস্থা আছে। রুমভেদে ভাড়ার কিছুটা পার্থক্যও আছে।

কাপল রুম : কাপল রুম সিঙ্গেল বেডের জন্য ভাড়া- ২,৫০০ টাকা

ডাবল বেড : ডাবল বেডের ভাড়া- ৩,০০০ টাকা

কোথায় খাবেনকি খাবেন :

রিসোর্টে খাবারের ব্যবস্থা করা হয় অতিথিদের জন্য। মেনু থেকে পছন্দ মতো খাবার বেছে নিয়ে তাদের জানালেই খাবারের ব্যবস্থা হয়ে যায়। চাইলে বারবিকিউ করা যায়, যদি অনুমতি থাকে। এছাড়া সাজেকে হোটেল কিংবা আদিবাসী ঘরেও আহারের ব্যবস্থা আছে। আগে থেকে বলা রাখলে পেয়ে যাবেন আপনার পছন্দ করা খাবারও। তবে কিছু ঐতিহ্যবাহী খাবার আছে যা আপনার খাবারের স্বাদের পরিবর্তন আনতে পারে। যা খাবেন :

  • ব্যাম্বু চিকেন/বাশেঁর কোড়লে রান্না করা মুরগি
  • বাশঁ কোড়লের ভাজি
  • থানকুনি পাতার সালাদ
  • ব্যাম্বু চা
  • কলা, আনারস, তেঁতুল, পেঁপে জাতীয় ফল

কিভাবে যাবেন :

আরামবাগ : সেন্টমার্টিন পরিহন

ফকিরাপুল : এস আলম, শ্যামলী পরিবহন

গাবতলী : ঈগল পরিবহন, সৌদিয়া পরিবহন, শান্তি পরিবহন, হানিফ পরিবহন, ইকোনো পরিবহন, হিমাচল পরিবহন ঢাকা থেকে এই বাসগুলো খাগড়াছড়ির উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। সাজেক পর্যন্ত সরাসরি কোনো বাস সার্ভিস চালু নেই, তাই খাগড়াছড়িগামী বাসে আগে সেখানে পৌঁছতে হবে। তারপর খাগড়াছড়ি থেকে লোকাল বাস, চাঁদের গাড়িতে করে দীঘিনালা আর দীঘিনালা থেকে সাজেক। তবে শান্তি পরিবহন দীঘিনালা পর্যন্ত যায়। এরপর দীঘিনালা থেকে আপনাকে চাঁদের গাড়ি করে যেতে হবে সাজেক ভ্যালীতে।

ঠিকানা  যোগাযোগ :

ম্যাডভেঞ্চার রিসোর্ট রুইলুইপাড়া, সাজেক, রাঙ্গামাটি

মোবাইল : +৮৮০১৮৮৫-৪২৪২৪২

মেসেঞ্জার : https://static.xx.fbcdn.net/rsrc.php/v3/y5/r/SSEf0jMMMxV.png

ফেইসবুক পেইজ : https://www.facebook.com/MadventureResort.sajek/

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

ভ্রমন সম্পর্কিত সকল নিউজ এবং সব ধরনের তথ্য সবার আগে পেতে, আমাদের সাথে থাকুন এবং আমাদেরকে ফলো করে রাখুন।

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget
© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Customized By ThemesBazar.Com