1. b_f_haque70@yahoo.com : admin2021 :
  2. editor@cholojaai.net : cholo jaai : cholo jaai
মহাকাশ ভ্রমণে যেতে পারেন আপনিও! স্পেসশিপে টিকিট কাটতে কী কী দরকার?
সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৬:০৯ অপরাহ্ন

মহাকাশ ভ্রমণে যেতে পারেন আপনিও! স্পেসশিপে টিকিট কাটতে কী কী দরকার?

চলযাই ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৯ জুলাই, ২০২১

কল্পবিজ্ঞান গল্প অথবা সিনেমার মতো মনে হলেও, এবার বাস্তবে হাজির হয়েছে মহাকাশ পর্যটন। মহাকাশে যাওয়ার জন্য এবার থেকে শুধু টাকা খরচ করলেই চলবে। মহাকাশ ভ্রমণের বর্তমান অবস্থা কী? মহাকাশ ভ্রমণে আপনার কী কী প্রয়োজন হতে পারে, সেই সব তথ্যই একনজরে দেখে নিন।

কোন কোন কোম্পানি স্পেসফ্লাইট চালাচ্ছে?

এই মুহূর্তে দুটি কোম্পানি কক্ষপথের নীচে কয়েক মিনিট ভ্রমণের ব্যবস্থা করেছে। এই দুই কোম্পানি হল জেফ বেজোসের স্পেস কোম্পানি ব্লু অরিজিন ও রিচার্ড ব্র্যানসনের ভার্জিন গ্যালাকটিক।

নিউ শেফার্ড রকেটে করে পর্যটকদের মহাকাশে নিয়ে যাবে ব্লু অরিজিন। ভূপৃষ্ঠ থেকে উল্লম্বভাবে উপরে উঠে 100 km উপরে স্পেসশিপ থেকে পৃথক হয়ে যাবে যাত্রীদের ক্যাপস্যুল। পরে তিনটি প্যারাসুটের মাধ্যমে এই ক্যাপস্যুল পৃথিবীপৃষ্ঠে ফিরবে।

একটি বিশাল কেরিয়ার প্লেনে যাত্রীদের মহাকাশ ভ্রমণে নিয়ে যাবে ভার্জিন গ্যালাকটিক, যা রানওয়ে থেকে টেক অফ করবে। 50 মাইল উচ্চতায় ওঠার পরে তা আবার পৃথিবীতে ফিরে আসবে।

মহাকাশে পৌঁছনোর পরে যানের ছয় যাত্রী তাঁদের সিট বেল্ট খুলে কয়েক মিনিটের জন্য শূন্য অভিকর্ষ অভিজ্ঞতা করতে পারবেন। এছাড়াও, মহাকাশ থেকে পৃথিবীর রূপ উপভোগ করতে পারবেন যাত্রীরা।

2022 সাল থেকে নিয়মিত মহাকাশে বাণিজ্যিক উড়ান পাঠাবে ভার্জিন গ্যালাকটিক। ইতিমধ্যেই ভার্জিন গ্যালাকটিক ফ্লাইটের 600 টিকিট বুক হয়ে গিয়েছে। তাই, এই কোম্পানির যানে মহাকাশে যেতে হলে আর মাত্র দুই বছর অপেক্ষা করতে হবে।

কোম্পানির দাবি, প্রতি বছর গড়ে 400 বার পাড়ি দেবে কোম্পানির ফ্লাইট। প্রথম ফ্লাইটের দুটি সিট এখনও ফাঁকা রয়েছে। সেই দুটি সিট প্রাইজ ড্রয়ের মাধ্যমে ঘোষণা হবে। 1 সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই ড্রয়ের রেজিস্ট্রেশন ওপেন থাকবে।

এছাড়াও, নিজেদের উড়ানের সূচি প্রকাশ করেছে ব্লু অরিজিন। কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, এই বছর আরও দুটি উড়ানের পরিকল্পনা রয়েছে। এর পরে 2022 সাল থেকে বহু উড়ান মহাকাশে পাঠাবে কোম্পানিটি।

খরচ কত?

ভার্জিন গ্যালাকটিকের বিক্রি করা প্রথম টিকিটগুলির দাম দুই থেকে আড়াই লক্ষ মার্কিন ডলার। তবে কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ভবিষ্যতে টিকিটের দাম বাড়ানো হবে। এখনও মহাকাশ ভ্রমণের টিকিটের দাম প্রকাশ করেনি ব্লু অরিজিন। প্রথম ভ্রমণে নিলামে 28 মিলিয়ন ডলারে সিট বুক করেছেন এক ব্যক্তি। তবে, টিকিট বুক করলেও ভ্রমণের দিন পিছিয়ে দিয়েছেন তিনি।

যদিও, এত টাকা খরচ করার সুযোগ না থাকলেও 1 লক্ষ 25 হাজার মার্কিন ডলারে স্পেস নেপচুনে সিট বুক করতে পারেন। একটি ফুটবল মাঠের আকারের বেলুনকে বেশি উচ্চতায় নিয়ে গিয়ে 360 ডিগ্রি ভিউ দেবে এই ক্যাপস্যুল। ভূপৃষ্ঠ থেকে 19 মাইলের বেশি উপরে উঠবে না এই বেলুন। এই উচ্চতায় শূন্য অভিকর্ষের অভিজ্ঞতা করা সম্ভব নয়। ইতিমধ্যেই 2024 সালের জন্য 300টি সিট বুক হয়ে গেলেও 2025 সালের সিট বুকিং চলছে।

না। শরীরের গঠন স্বাভাবিক হলেই হবে। ভার্জিন গ্যালাকটিক উড়ালের আগে 5 দিনের ট্রেনিং দেবে। ব্লু অরিজিনও জানিয়েছে, উড়ানের আগে সব প্রয়োজনীয় জিনিস শিখিয়ে দেওয়া হবে। লঞ্চের আগের দিন হবে এই প্রশিক্ষণ। ব্লু অরিজিনের তরফে আরও জানানো হয়েছে যে, 90 সেকেন্ডের মধ্যে সাতটি ফ্লাইটের সিঁড়ি চড়তে পারলেই মহাকাশ ভ্রমণে যাওয়া যাবে। উড়ানে সিট বুক করার জন্য উচ্চতা 5 ফুট থেকে 6 ফুট 4 ইঞ্চির মধ্যে ওজন ও 50 কিলোগ্রাম থেকে 100 কিলোগ্রামের মধ্যে ওজন হতে হবে।

SpaceX কী করছে?

এই দুই কোম্পানির সঙ্গেই স্পেস ট্যুরিজম ব্যবসায় নামছে এলন মাস্কের স্পেস কোম্পানি। যদিও, স্পেসএক্সের যাত্রা এই দুই কোম্পানির তুলনায় অনেক দীর্ঘ হবে। খরচও হবে অনেক বেশি। শোনা যাচ্ছে, একবার মহাকাশ যাত্রায় খরচ হবে 10 মিলিয়ন মার্কিন ডলার। 2022 সালে বিশ্বের তিন ব্যবসায়ী একজন অভিজ্ঞ মহাকাশচারীর সঙ্গে ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনে যাবে। স্পেসএক্সের রকেটে চেপে মহাকাশে পাড়ি দেবেন তাঁরা। এছাড়াও, এলন মাস্কের কোম্পানি কক্ষপথে ভ্রমণের ব্যবস্থাও করছে বলে জানা গিয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com