রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

ব্রিটেনের স্টুডেন্ট ভিসা

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১

ব্রিটেনের স্টুডেন্ট ভিসা দুই ধরণের। ৬ মাসের কম এবং ৬ মাসের বেশি অর্থাৎ প্রার্থী যদি কোন ডিগ্রী বা কলেজ কোর্স করতে যায় । যার জন্য ৬ মাসের বেশি সময় লাগবে। তবে তাকে study visa আবেদন করতে হবে। ১৮ বছরের কম হলে child study visa এবং কোন কোর্স যেমন- ১১ মাসের ইংরেজি ভাষা শিখার এবং ৬ মাসের কম কোন কোর্স হলে study visit ভিসা আবেদন করতে হবে। যা Tier 4 (General) student visa এর আওতাভুক্ত। আবেদনের পূর্বে সকল প্রার্থীদের স্টুডেন্ট ভিসা সংক্রান্ত পলিসি জেনে নিতে হবে।

স্টুডেন্ট ভিসার জন্য আবেদনের শর্তাবলী

কাগজপত্র
আবেদনের জন্য প্রার্থীকে যে সব কাগজপত্র সরবরাহ করতে হবে –

  • পাসপোর্ট
  • স্বাক্ষরযুক্ত পাসপোর্ট সাইজ ছবি ২ কপি
  • অর্থনৈতিক ভাবে সচ্ছলতার প্রমাণ
  • বয়স ১৮ এর নিচে হলে আইনগত অভিভাবকের প্রমাণ
  • টিবি পরীক্ষার রিপোর্ট
  • পাসপোর্টে অন্তত একটি ফাঁকা পেজ থাকতে হবে
  • সকল পরীক্ষার সার্টিফিকেট এবং মার্ক-সিটের ফটোকপি
  • IELTS এর স্কোর সর্বনিম্ন ৫.৫
  • One year study in English Certificate এর ফটোকপি (যদি IELTS করা না থাকে)
  • যে প্রতিষ্ঠানে পড়তে যাবেন এবং যে বিষয়ের উপরে পড়বেন তার উপর ভিত্তি করে অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র।

ভিসা প্রসেসিং এর সময়

  • যে প্রতিষ্ঠানে পড়তে যাবেন সেখানে ক্লাস শুরু হওয়ার তিন মাস আগেই ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন
  • স্টুডেন্ট ভিসার প্রসেসিং এর কাজ শেষ হতে প্রায় ১ মাস সময় লাগে

ভিসা ফী

  • ভিসা প্রসেসিং এর জন্য প্রত্যেক আবেদনকারীকে ৩২২ ব্রিটিশ পাউন্ড (প্রায় ৩৮,৩৩৪ টাকাভিসা ফী হিসেবে জমা দিতে হবে।
  • হেলথ-কেয়ার চার্জ হিসেবে নির্দিষ্ট ফী প্রদান করতে হবে। বিভিন্ন কারণের উপর ভিত্তি করে হেলথ-কেয়ার চার্জ বিভিন্ন হয়ে থাকে। আপনার হেলথ-কেয়ার চার্জ কত হবে তা জানতে, প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ফর্ম পূরণ করলেই হেলথ-কেয়ার চার্জের পরিমাণ কত তা জানা যাবে।
  • হেলথ-কেয়ার চার্জ জমা দিতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন –
        হেলথ-কেয়ার চার্জ
  • বায়োমেট্রিক তথ্য’ যেমন – ‘আঙ্গুলের ছাপ এবং আবেদনকারীর একটি ছবি’ ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর সময় প্রদান করতে হবে।

স্টুডেন্ট ভিসার মেয়াদ

  • ৬ মাসের কোর্সের ক্ষেত্রে কোর্স শুরু হওয়ার ১ সপ্তাহ আগে যুক্তরাজ্যে যেতে পারবেন
  • ৬ মাসের বেশি সময়সীমার কোর্সের ক্ষেত্রে কোর্স শুরু হওয়ার ১ মাস আগে যুক্তরাজ্যে যেতে পারবেন
  • যুক্তরাজ্যে কত দিন পর্যন্ত অবস্থান করতে পারবেন তা নির্ভর করবে কোর্সের ধরণের উপরে এবং যে যে কোর্স করে আপনি যুক্তরাজ্যে গিয়েছেন তার উপর।

স্টুডেন্ট ভিসা যা অনুমোদন দেয়

  • পড়াশুনা করা
  • Student union sabbatical officer হিসেবে কাজ করা
  • স্পন্সর ও কোর্স ভিত্তিতে অন্যান্য কাজের সুবিধা
  • ভিসার মেয়াদ বাড়ানো এবং ধরণ পরিবর্তন করা
  • শর্ত সাপেক্ষে এবং বিশেষ ক্ষেত্রে পরিবারের সদস্যদের যুক্তরাজ্যে নেয়া যাবে

স্টুডেন্ট ভিসা যা অনুমোদন দেয় না

  • পাবলিক ফান্ড
  • পেশাগত খেলোয়াড়, কোচ হতে পারবেন না

স্টুডেন্ট ভিসার মেয়াদ বাড়ানো

স্টুডেন্ট ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর প্রয়োজন হলে সুনির্দিষ্ট কারণ দেখানোর মাধ্যমে ভিসার মেয়াদ বাড়ানো যায়। ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন করতে হবে। কোর্স শেষ হওয়ার পূর্বেই যদি ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তবে নির্দিষ্ট ফী প্রদান করে স্টুডেন্ট ভিসার মেয়াদ বাড়াতে হবে।

  • আবেদনকারীকে ব্রিটেনে অবস্থান করতে হবে
  • স্টুডেন্ট ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয়তা যোগ্যতা এবং কারণ সমূহ থাকতে হবে
  • ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আবেদন করার পূর্বে ‘Tier 4 Guidance’ টি আবেদনকারীকে পরে নিতে হবে।
  • স্টুডেন্ট ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য প্রত্যেক আবেদনকারীকে ৪৩৯ ব্রিটিশ পাউন্ড (প্রায় ৫২,০৫০ টাকা) ফী হিসেবে জমা দিতে হবে।
  • হেলথ-কেয়ার চার্জ হিসেবে নির্দিষ্ট ফী প্রদান করতে হবে। বিভিন্ন কারণের উপর ভিত্তি করে হেলথ-কেয়ার চার্জ বিভিন্ন হয়ে থাকে। আপনার হেলথ-কেয়ার চার্জ কত হবে তা জানতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ফর্ম পূরণ করলেই হেলথ-কেয়ার চার্জের পরিমাণ কত তা জানা যাবে।
  • হেলথ-কেয়ার চার্জ জমা দিতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন –
        হেলথ-কেয়ার চার্জ
  • বায়োমেট্রিক তথ্য’ যেমন – ‘আঙ্গুলের ছাপ এবং আবেদনকারীর একটি ছবি’ ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর সময় প্রদান করতে হবে। এ সময় প্রত্যেক আবেদনকারীকে ১৯.২০ ব্রিটিশ পাউন্ড (প্রায় ২,২৭৬ টাকা) ফী হিসেবে জমা দিতে হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

ভ্রমন সম্পর্কিত সকল নিউজ এবং সব ধরনের তথ্য সবার আগে পেতে, আমাদের সাথে থাকুন এবং আমাদেরকে ফলো করে রাখুন।

© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Customized By ThemesBazar.Com