বিশ্বের প্রথম সোনায় মোড়া হোটেল- তাক লাগিয়ে দিল ভিয়েতনাম

সোনায় (gold) মোড়া গোটা হোটেল, সোনার তৈরি সুইমিং পুল, সোনার তৈরি কমোড…। কি ভাবছেন অলীক কল্পনা? না, একেবারে বাস্তব সত্য। সেলুলয়েডের কোন গল্প নয়, একেবারে হাতে ধরে দেখতেও পারবেন। ভ্রমণের আরও একটি দিক উন্মোচন করে ভিয়েতনামের রাজধানী হানোইয়েতে তৈরি হল বিশ্বের প্রথম সোনায় মোড়া হোটেল (World’s First Gold Plated Hotel)।

করোনার আবহে মানুষ যখন ভ্রমণ শব্দের অর্থই ভুলতে বসেছিল, তখন অন্যদিকে ২০০৯ সাল থেকে নির্মাণ কার্য শুরু করে এই ২০২০ তেই সকলের জন্য উন্মুক্ত হল বিশ্বের প্রথম সোনায় মোড়া হোটেল। পাঁচতারা থুড়ি ছয়তারা বললেও ভুল হবে না, ‘ডলস হানোই গোল্ডেন লেক’ (Dolce Hanoi Golden Lake) হোটেলের পুরোটাই সোনায় বাঁধানো। আশা রাখা যাচ্ছে চলতি বছরেই খুলে যাবে সাধারণের জন্য।

কত খরচ পড়ল এই হোটেল নির্মাণে?
২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা ভারতীয় মূল্যে প্রায় ১৫০০ কোটি টাকা। ২৪ ক্যারেটের সোনা দিয়েই সম্পূর্ণটা তৈরি করা হয়েছে। হোটেলের অন্দরে এবং বাইরেও ৫০০০ বর্গমিটারের সোনার পাতে মোড়া সেরামিক টাইলস দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। ২৫ তলা বিশিষ্ট এই হোটেলের একেবারে টপে রয়েছে ইমিউনিটি পুল।

সোনায় মোড়া কি কি রয়েছে?
হোটেলের ঘর থেকে শুরু করে বাথরুম, পুল, বাথটব, দরজা সবকিছুই রয়েছে সোনার তৈরি। এমনকি খাবার পরিবেশন থেকে শুরু করে সর্বোপরি চায়ের কাপ প্লেটও থাকছে সোনার। পাশাপাশি সমস্ত আসবাবপত্রই থাকছে সোনার।

এক রাতে কত খরচা পড়বে?
উচ্চবিত্ত ধনী পরিবারের পাশাপাশি যাতে এই হোটেলে সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষের কথা চিন্তা করে এই হোটেল ভাড়া রাখা হয়েছে একেবারেই সাধারণ মানের। হোটেলে রুম ভাড়া শুরু হচ্ছে সর্বনিম্ন ২৫০ মার্কিন ডলার থেকে, যা ভারতীয় মুদ্রায় দাঁড়াচ্ছে প্রায় ১৯ হাজার টাকা। তবে আপনি যদি কোন অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া করতে চান, সেক্ষেত্রে ৬৫০০ মার্কিন ডলার খরচা পড়বে। অর্থাৎ ভারতের মুদ্রায় প্রায় প্রায় ৫ লক্ষ টাকা।

হানোইয়েতে এই নতুন পর্যটন ক্ষেত্রে নির্মানে পূর্বের তুলনায় আরও ব্যাপকহারে বাড়বে পর্যটকের সংখ্যাও। হোটেলের নির্মাতা সংস্থা হোয়া বিন গ্রুপের চেয়ারম্যান এনগ্যুয়েন হু ডুয়োং জানিয়েছেন, ‘আমাদের গ্রুপেরই একটি ফ্যাক্টরিতে খুব সস্তায় সোনার জিনিস বানানো যায়। সেখান থেকেই এই হোটেলের নির্মান কার্যের প্রয়োজনীয় সামগ্রী নেওয়া হয়েছে। যে কারণে অনেক কম খরচায় পর্যটকরা এখানে রুম ভাড়া নিয়ে থাকতে পারবেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: