1. admin2@cholojaai.net : admin2 :
  2. b_f_haque70@yahoo.com : admin2021 :
  3. editor@cholojaai.net : cholo jaai : cholo jaai
বাংলাদেশের দুই বোনকে ভারতের যৌনপল্লীতে বিক্রি
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৪৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নত বিশ্বের তুলনায় অনেক বছর পিছিয়ে আছে: ডঃ সায়েম অ্যাকশন সিনেমায় বলিউড অভিনেত্রীরা কক্সবাজারের টেকনাফ সমুদ্রসৈকতে ভেসে এলো দুই তরুণীর মরদেহ ৩০ হাজার টাকা পুঁজিতে আয় লাখ টাকা এটাই আমার শেষ বিশ্বকাপ: মেসি বাবাকে দেখেই বিমানচালক হওয়ার স্বপ্ন, ছেলের প্রথম উড়ানেই একই বিমানের ককপিটে বাবার পাশে ছেলে একই বাড়িতে স্বামীর সঙ্গে থাকেন প্রেমিকও, দুই পুরুষের সঙ্গেই সংসার দুই সন্তানের মায়ের কী ভাবে ‘হাতের পুতুল’ হবেন স্বামী? নারীদের তা শিখিয়ে দেওয়াই পেশা জীবনশৈলীর শিক্ষিকার চত্বরে চত্বরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে চেনা-জানা আমিরাত-ওমানকে সংযুক্ত করবে রেল, ভ্রমণের সময় কমবে ৪৭ মিনিট

বাংলাদেশের দুই বোনকে ভারতের যৌনপল্লীতে বিক্রি

চলোযাই ডেস্ক :
  • আপডেট সময় বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২

টাকার লোভে স্ত্রী এবং শ্যালিকাকে ভারতে পাঠাতে দালালদের হাতে তুলে দেন ইউসুফ নামে এক ব্যক্তি। দালালরা ওই দুই বোনকে বেশি বেতনের প্ররোচনায় ঝিনাইদহের মহেশপুর থানার বাঘাডাঙ্গা সীমান্ত দিয়ে ২০২১ সালের ৪ মে অবৈধভাবে ভারতে পাচার করেন। ভারতে অবস্থানরত সহযোগিদের সহায়তায় দুই বোনকে যৌনপল্লীতে বিক্রি করা হয়। সেখানে দুই বোন নির্যাতনের শিকার হন।

পরবর্তীতে সেখান থেকে পালিয়ে ভারতীয় পুলিশের সহায়তায় এই দুই বোন এ বছরের ২২ মার্চ বাংলাদেশে ফেরত আসেন ও আদালতে জবানবন্দি দেন।

কয়েকদিন আগেই ইউসুফকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। তার দেওয়া তথ্যমতে ভারতে নারী পাচার চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি।

আজ (বুধবার) মালিবাগে সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিআইডির সিরিয়াস ক্রাইম বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার মো. নজরুল ইসলাম।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- রানা আহমেদ, মো. সুজন মিয়া, মো. সাহাবুদ্দীন এবং নাইমুর রহমান।  ঝিনাইদহ ও চুয়াডাঙ্গা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সিআইডির মো. নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা তদন্ত করে দেখেছি তারা দুই বোনকে ভারতে পাচার করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন। আমরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি। যারা যারা জড়িত থাকবে তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনা হবে।

সিআইডি জানায়, সংসার করা ইউসুফের উদ্দেশ্য ছিল না। ভারতে পাচার করার জন্যই তিনি বিয়ে করেন। ইউসুফই তার স্ত্রী ও শ্যালিকাকে দালালের কাছে তুলে দেয়।

বিশেষ পুলিশ সুপার মো. নজরুল ইসলাম আরো বলেন, এই চক্রের দেশি-বিদেশি অন্যান্য সদস্যদের তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। জড়িত অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তার করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে সিআইডির মানবপাচার ইউনিট কাজ করে যাচ্ছে। গ্রেপ্তার চার আসামির বিরুদ্ধে একাধিক মামলার তদন্ত চলছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com