রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৯:১২ অপরাহ্ন
Uncategorized

ঘুরে আসুন পর্তুগাল

  • আপডেট সময় বুধবার, ৫ মে, ২০২১

ইতিহাস, ঐতিহ্যে ইউরোপের প্রাচীন দেশ পর্তুগাল। শিল্প, নান্দনিকতা ও ঐতিহাসিকভাবে মানুষের কাছে ভালোবাসার দেশ এটি। পর্তুগালে অসংখ্য দর্শনীয় স্থান রয়েছে। আজ আপনাদের পর্তুগালের সেরা ১০ দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জানাবো। আসুন জানা যাক-

১. লিসবন

পর্তুগালের রাজধানী লিসবন মানুষের কাছে সুপরিচিত জায়গা। এই শহরে হাঁটা ও ব্যায়াম অনুশীলনের জন্য অসংখ্য পার্ক রয়েছে। আলফামা নামে একটি ঝরনা দর্শনার্থীদের জন্য আনন্দদায়ক। লিসবন পুরো ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বড় ও প্রসিদ্ধ শহর হিসেবে বিবেচিত।

২. পোর্টো

পোর্টো পর্তুগালের দ্বিতীয় বড় শহর। এই শহরে অনেক রঙীন ভবন রয়েছে যা পর্যটককে বিমোহিত করবে। এখানে বিখ্যাত একটি রেলস্টেশন সাও বেন্টো রেলওয়ে। দর্শনার্থীরা এই শহরকে অনেক পছন্দ করে থাকে। এই শহরে রয়েছে দৌরো উপত্যকা। এই উপত্যকায় অসংখ্য পর্যটক ভ্রমণ করে থাকেন।

৩. মাদেরিয়া

মাদেরিয়া একটি দ্বীপ। এখানে রয়েছে পোর্ট সান্তো নামে একটি বন্দর। এছাড়া মাদেরিয়ার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো মিউজিয়াম ফুটবলপ্রেমী পর্যটকদের অত্যন্ত আকর্ষণীয় জায়গা। আরও একটি মিউজিয়াম রয়েছে যার নাম মাদেরিয়া ওয়াইন মিউজিয়াম। এসব মিউজিয়ামে মানুষ সকাল-সন্ধ্যা আসেন।

৪. এরিকেইরা

পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে এরিকোইরা এটি ছোট একটি গ্রাম। এর বেশিরভাগ মানুষের পেশা মৎস্যজীবী। লিসবন থেকে খুব কম সময়ে এই গ্রামে আসা যায়। এরিকেইরা গ্রামে অনেক সামুদ্রিক খাবার পাওয়া যায়। মানুষ এই গ্রামকে ভালোবাসে।

৫. আলগার্ভ

নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু আবহাওয়ার অঞ্চল আলগার্ভ। এই অঞ্চলে একাধিক মনোরম সমুদ্রসৈকত এবং অসংখ্য দর্শনীয় স্থান রয়েছে। এসব সমুদ্রসৈকত ও দর্শনীয় স্থানে সবসময় পর্যটকদের ভীড় দেখা যায়।

৬. আলেন্টেজো

আলেন্টেজো অঞ্চলটি রয়েছে পর্তুগালের প্রাচীন ইতিহাসসমৃদ্ধ। চ্যাপেলা ডস ওসোস বা চ্যাপেল অব বোনস নামে একটি গীর্জা রয়েছে। ষোড়শ শতাব্দিতে নির্মিত গীর্জাটির দেয়ালে আনুমানিক ৫ হাজার মানুষের স্কেলিটন রয়েছে। এটি রোমান মন্দিরের মতো পবিত্র ঐতিহাসিক স্থাপনা হিসেবে বিবেচিত হয় স্থানীয়দের কাছে।

৭. সিন্ট্রা

শিশুতোষ রূপকথার বিখ্যাত লেখক হান্স খ্রিস্টান অ্যান্ডারসন সিন্ট্রা শহরে বসবাস করেন। তার বাসভবন সিন্ট্রাস উড নামে পরিচিত। এই শহরে রয়েছে অসংখ্য অভিজাত ভবন ও সুরক্ষিত দুর্গ। বিশ্বের মানুষ এই শহরকে অনেক পছন্দ করে।

৮. ওবিডোস

ওবিডোস শহরে রয়েছে অসংখ্য সুরক্ষিত দুর্গ। সুদৃশ্যমান ভবনে পরিপূর্ণ এই শহরে রয়েছে অনেক অভিজাত ভবন। পর্তুগালের এই শহরে রয়েছে লিটারেরি ম্যান হোটেল নামে একটি লাইব্রেরি রয়েছে। এই শহর অনেক মানুষের কাছে পছন্দের।

৯. সেরা ডা এস্ট্রেলা

পাহাড়ঘেঁষা অঞ্চল সেরা ডা এস্ট্রেলা। প্রকৃতিপ্রেমী পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য এই অঞ্চল উপযুক্ত স্থান। শীতকালে এখানে স্কিইং করার সুযোগ রয়েছে। ২০১৭ সালে পর্তুগালের এই অঞ্চল সেরা ৭ বিস্ময়কর স্থানের অন্যতম ছিলো। প্রকৃতিই এখানে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। প্রকৃতির টানে পর্যটকরা এখানে ভ্রমণ করেন।

১০. কইম্ব্রা

পর্তুগালের মধ্যবর্তী অঞ্চলে অবস্থিত এই শহর সম্পর্কে পর্যটকদের আগ্রহের কমতি নেই। এই শহরে রয়েছে অসংখ্য ঐতিহাসিক স্থাপনা। এই শহরে সবচেয়ে বড় আকর্ষণ ইউনিভার্সিটি অব কইম্ব্রা। এই ইউনিভার্সিটি দেশটির অনেক পুরনো ইউনিভার্সিটি হিসেবে পরিচিত।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

ভ্রমন সম্পর্কিত সকল নিউজ এবং সব ধরনের তথ্য সবার আগে পেতে, আমাদের সাথে থাকুন এবং আমাদেরকে ফলো করে রাখুন।

© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Customized By ThemesBazar.Com