1. [email protected] : admin2021 :
  2. [email protected] : cholo jaai : cholo jaai
ঘুরে আসুন ইউরোপ
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন

ঘুরে আসুন ইউরোপ

চলযাই ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১

সাম্প্রতিক সময়ে জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড ট্যুরিজম অর্গানাইজেশনের প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৮ সালে বিশ্বে মোট ১ দশমিক ৪ বিলিয়ন পর্যটক ভ্রমণ করেছেন। এর মধ্যে শুধু ইউরোপেই ভ্রমণ করেছেন ৭১৩ মিলিয়ন পর্যটক।

আধুনিক আভিজাত্যময় শহরের ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা দেখার জন্য অনেকেই ইউরোপের দেশগুলোতে ভ্রমণ করে থাকেন। আজ ইউরোপের সেরা ৯ জায়গা সম্পর্কে আপনাদের জানাবো। আসুন জেনে আসা যাক সেসব জায়গা সম্পর্কে-

১. ফ্রান্স

বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণ করা হয়ে থাকে ফ্রান্সে। ইউরোপের অন্যান্য দেশের মধ্যেও ফ্রান্স পর্যটকদের পছন্দের তালিকায় এগিয়ে রয়েছে। দেশটির অভিজাত ভবন, সুরক্ষিত দুর্গ ও সুশোভিত গীর্জা ফ্রান্সের পর্যটন খাতকে সুখ্যাতি এনে দিয়েছে।

২. স্পেন

ইবারিয়ান উপদ্বীপে অবস্থিত স্পেন ইউরোপের দ্বিতীয় দেশ যেখানে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণ করা হয়। শুধু ২০১৭ সালে ৮১ দশমিক ৮ মিলিয়ন পর্যটক এখানে ভ্রমণ করেছেন। স্পেনে রয়েছে জাতিসংঘের ইউনেস্কো কর্তৃক ঘোষিত ৪৭টি ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা। এখানে উন্নত মানের খাবার পাওয়া যায়।

৩. ইতালি

বিশ্বের যত বিখ্যাত ভবন রয়েছে তার সিংহভাগ রয়েছে ইতালিতে। প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী রোম এর রাজধানী। অভিজাত ভবন, সুরম্য গীর্জা এবং মনোমুগ্ধকর সমুদ্রসৈকত দেখার জন্য পর্যটকরা ইতালিতে এসে থাকেন। ২০১৬ সালে ইতালিতে ৫৮ দশমিক ৩ মিলিয়ন এবং ২০১৭ সালে ৫২ দশমিক ৪ মিলিয়ন পর্যটক ইতালি ভ্রমণ করেছিলেন।

৪. যুক্তরাজ্য

ইউরোপের সবচেয়ে প্রাচীন দেশ যুক্তরাজ্য। ঐতিহ্য ও আধুনিকতার মিলন ঘটেছে দেশটিতে। ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস ও উত্তর আয়ারল্যান্ড- এই চার অঙ্গরাজ্য নিয়ে গঠিত যুক্তরাজ্য। এখানে অভিজাত ভবন, দুর্গ, গীর্জাসহ নানাবিধ আকর্ষণীয় দর্শনীয় স্থান রয়েছে। ২০১৭ সালে দেশটিতে ৩৭ দশমিক ৭ মিলিয়ন পর্যটক ভ্রমণ করেছিলেন।

৫. তুরস্ক

তুরস্কের রাজধানী ইস্তানবুল শহরে ভ্রমণ করতে চায় সবাই। ইস্তানবুল শহর ৬৬০ খ্রিস্টাব্দে রোমের বাইজান্টাইন শাসনের সমসাময়িক। শহরটি কন্সটান্টিনোপল নামেও পরিচিত। তুরস্কের অটোমান সাম্রাজ্যভুক্ত হওয়ার আগে শহরটি রোম সাম্রাজ্যভুক্ত ছিলো। ইস্তানবুল শহরের মনোরম সৌন্দর্যের কারণে তুরস্ক পর্যটকদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে। ২০১৭ সালে ৩৭ দশমিক ৬ মিলিয়ন পর্যটক তুরস্কে ভ্রমণ করেন।

৬. জার্মানি

বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ জার্মানিতে দর্শনীয় স্থানগুলোতে প্রচুর লোকসমাগম হয়। ২০১৭ সালে ৩৭ দশমিক ৫ মিলিয়ন পর্যটক ভ্রমণ করেছেন জার্মানিতে। জার্মানি সীমান্তের উত্তরে ডেনমার্ক, পূর্বে পোল্যান্ড ও চেক প্রজাতন্ত্র এবং দক্ষিণে অস্ট্রিয়া ও সুইজারল্যান্ড, দক্ষিণ-পশ্চিমে ফ্রান্স এবং পশ্চিমে নেদারল্যান্ড ও বেলজিয়াম অবস্থিত। এসব দেশ থেকে রেল ও বিমানে সহজেই জার্মানিতে ভ্রমণ করা যায়।

৭. অস্ট্রিয়া

২০১৭ সালে প্রায় ৩০ মিলিয়ন পর্যটক অস্ট্রিয়ায় ভ্রমণ করেছেন। শিল্প, স্থাপত্য এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা দেশটিতে রয়েছে অভিজাত ও সুরক্ষিত দুর্গ এবং নান্দনিক ভাস্কর্য। শীতকালীন খেলাধুলার জন্য অস্ট্রিয়ান আল্পস পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় জায়গা। ক্রীড়ামোদীরা অবসর কাটাতে এখানে এসে থাকেন।

৮. গ্রিস

গ্রিসের হেলেনিক প্রজাতন্ত্র নগররাষ্ট্রভিত্তিক রাষ্ট্রব্যবস্থা হিসেবে পরিচিত। প্রাচীনকালে স্পার্টা, এথেন্সসহ অন্যান্য স্থানে নগররাষ্ট্রের গোড়াপত্তন হয়েছিলো। ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা দেখার জন্য এখানে প্রতি বছর পর্যটকের ভীড় দেখা যায়। ২০১৬ সালে ২৪ দশমিক ৮ মিলিয়ন এবং ২০১৭ সালে ২৭ দশমিক ২ মিলিয়ন পর্যটক গ্রিসে এসেছিলেন।

৯. রাশিয়া

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া। ইউরোপ মহাদেশের মধ্যে যে দেশগুলোতে সবচেয়ে বেশি ভ্রমণ করা হয়, রাশিয়া তার মধ্যে অন্যতম। ২০১৭ সালে ২৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন পর্যটক রাশিয়ায় ভ্রমণ করেছিলেন। অভিজাত ভবন ও সুশোভিত গীর্জাসহ আরও অনেক দর্শনীয় স্থান রয়েছে এখানে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 cholojaai.net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com