হংকং

ব্রিটিশদের কাছ থেকে চিনের আওতায় চলে যাওয়া ক্ষুদ্র অথচ অত্যন্ত উন্নত এই দেশটি এশিয়াকে পৃথিবীর বুকে সুপরিচিত করতে অন্যতম একটি রাষ্ট হিসেবে পরিচিত।

দীর্ঘদিন ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অধিনে থাকার কারণে তাদের চলাফেরা, খাদ্যাভ্যাস থেকে শুরু করে প্রায় জীবনের সব ক্ষেত্রেই পশ্চিমা একটা প্রভাব খেয়াল করা যায়।

এশিয়ার অন্যান্য দেশের তুলনায় হংকং শহর অনেক উন্নত এবং পরিকল্পিত উপায়ে তৈরি করা। ছোট এই এলাকার জনবসতি অনেক বেশি হলেও পর্যাপ্ত পরিকল্পনার কারণে এখানে নেই কোন ট্রাফিক জ্যাম বা অন্য কোনো অব্যাবস্থা। নেই দুর্নীতি, নোংরা পরিবেশ অথবা নিরাপত্তাহিনতা।

হংকং এর আরও প্রাকৃতিক পরিবেশ গুলো উপভোগ করতে চাইলে এর আশে পাশে ছড়ানো দ্বিপগুলোতে বেড়াতে যেতে হবে। এখানে পাবেন অনেক সুন্দর সব সৈকত এবং সব ধরনের আধুনিক সুযোগ সুবিধা।

গগনচুম্বী অট্টালিকার হংকং। ছবি : সিএনএন

হংকং দ্বিপ, লান্তাউ দ্বিপ, কউলুন পেইনিনসুলা সহ মত ২৬২টি দ্বিপ মিলে হংকং গঠিত। এটা পৃথিবীর চতুর্থ ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা। তালিকার প্রথমে আছে ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলা।

ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা হলেও নগরায়নের জন্যে ২৫ শতাংশ জায়গা এবং পার্ক ও বিনোদনের জন্যে ৪০ শতাংশ স্থান বরাদ্দ আছে।

বাকি এলাকা পুরোটাই বনাঞ্চল। হংকং এর বাসিন্দাদের হংকঙ্গিজ বা  হংকঙ্গার বলা হয়। এখানে চীনা (ক্যান্টোনিজ) এবং ইংরেজি এই দুই ধরনের ভাষা প্রচলিত আছে। হংকং কে বলা হয় স্কাইস্ক্র‍্যাপারের শহর।

কোন বিল্ডিং ১৪ তলার বেশী হলে তাঁকে স্কাইস্ক্র‍্যাপার বলা হয়। সেই হিসেবে হংকং এ সবচাইতে বেশী স্কাইস্ক্র‍্যাপার আছে। ঢাকা থেকে হংকং বিমান ভাড়া জনপ্রতি ২২,২০০ – ২২,৩০০ টাকা থেকে শুরু হয় ( সময় অনুযায়ী তারতম্য ঘটে)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: